Breaking News
Home / সম সাময়িক / ঘূর্ণিঝড় ও জলোচ্ছ্বাসের পরে আমাদের করণীয় যা খুবই গুরুত্বপূর্ণ

ঘূর্ণিঝড় ও জলোচ্ছ্বাসের পরে আমাদের করণীয় যা খুবই গুরুত্বপূর্ণ

ব্যাপক তাণ্ডব ঘটিয়ে বাংলাদেশের উপকূলীয় অঞ্চল অতিক্রম করেছে ঘূর্ণিঝড় রোয়ানু। ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডবে চট্টগ্রাম, ফেনী, কক্সবাজার, লক্ষ্মীপুর, নোয়াখালী, ভোলা ও পটুয়াখালীতে মারা গেছেন ২১..
দুর্যোগ পরবর্তী করণীয়:
 
১. রাস্তা-ঘাটের উপর উপড়ে পড়া গাছপালা সরিয়ে ফেলুন যাতে সহজে সাহায্যকারী দল আসতে পারে এবং দ্রুত যোগাযোগ সম্ভব হয়।
২. আশ্রয়কেন্দ্র হতে মানুষকে বাড়ি ফিরতে সাহায্য করুন এবং নিজের ভিটায় বা গ্রামে অন্যদের মাথা গোঁজার ঠাঁই করে দিন।
৩. অতি দ্রুত উদ্ধার দল নিয়ে খাল, নদী, পুকুর ও সমুদ্রে ভাসা বা বনাঞ্চলে বা কাদার মধ্যে আটকে পড়া লোকদের উদ্ধার করুন।
৪. ঘূর্ণিঝড় ও জলোচ্ছ্বাসে ক্ষতিগ্রস্ত জনসাধারণ যাতে শুধু এনজিও বা সরকারি সাহায্যের অপেক্ষায় বসে না থেকে নিজে যেন অন্যকে সাহায্য করে সে বিষয়ে সচেষ্ট হতে হবে।
৫. রিলিফের মুখাপেক্ষী না হয়ে নিজের পায়ে দাঁড়াতে সচেষ্ট হোন। রিলিফের পরিবর্তে কাজ করুন।  কাজের সুযোগ সৃষ্টি করুন। রিলিফ যেন মানুষকে কর্মবিমুখ না করে কাজে উৎসাহী করে সেভাবে রিলিফ বিতরণ করতে হবে।
৬. দ্বীপের বা চরের নিকটবর্তী কাদার মধ্যে আটকে পড়া লোকদের উদ্ধারের জন্য দলবদ্ধ হয়ে দড়ি ও নৌকার সাহায্যে লোক উদ্ধার কর্মআরম্ভ করুন। কাদায় আটকে পড়া লোকের কাছে দড়ি বা বাঁশ পৌঁছে দিয়ে তাকে উদ্ধার কাজে সাহায্য করা যায়।
৭. ঝড় একটু কমলেই ঘর থেকে বের হবেন না। পরে আরও প্রবল বেগে অন্যদিক থেকে ঝড় আসার সম্ভাবনা বেশি থাকে।
৮. পুকুরের বা নদীর পানি ফুটিয়ে পান করুন। বৃষ্টির পানি ধরে রাখুন।
৯. দ্রুত উৎপাদনশীল ধান ও শাক-সব্জির জন্য জমি প্রস্তুত করুন, বীজ সংগ্রহ করুন এবং কৃষি কাজ শুরু করুন যাতে যথাসম্ভব তাড়াতারিড় ফসল ঘরে আসে।
গুরুত্বপূর্ণ ফুটনোট:
১.  দরজায় তালা দিন; গ্যাস বা পানির সরবরাহ লাইন বন্ধ করুন এবং সঙ্গে ইমারজেন্সি কিট নিয়ে নিন।
২. সব ধরনের বৈদ্যুতিক সরঞ্জামের বিদ্যুত সংযোগ বিচ্ছিন্ন করুন। ব্যাটারিচালিত রেডিও’র মাধ্যমে আপডেট শুনতে থাকুন।
৩. যদি এ সময়ে আপনি গাড়ি চালানো অবস্থায় থাকেন, তাহলে থামুন (হ্যান্ডব্রেক অন করুন এবং গাড়ি গিয়ারে রাখুন)। সমুদ্র থেকে সর্বোচ্চ দূরত্বে থাকুন, গাছ, বিদ্যুতের তার এবং ঝরনা থেকে দূরে থাকুন। গাড়ির মধ্যেই থাকুন।
৪. একটি বহনযোগ্য ব্যাটারি রেডিও, টর্চ ও বাড়তি ব্যাটারি;
৫. পানির বোতল বা ‘কন্টেইনার’, শুষ্ক ও প্যাকেটজাত খাবার;
৬. দেয়াশলাই বা গ্যাস লাইটার, কেরোসিন বাতি বা কুপি, বহনযোগ্য স্টোভ, রান্না ও খাওয়ার সরঞ্জাম, এবং
৭. ফার্স্ট এইড কিট ও ম্যানুয়াল, ওয়াটারপ্রুফ ব্যাগ ঠিকঠাক রাখার জন্য মাসকিং টেপ।
৮. জরুরি ফোন নাম্বারগুলো সহজে চোখে পড়ে, এমন কোনো জায়গায় ঝুলিয়ে রাখুন। সম্ভব হলে নিজের কাছে রাখুন।
৯. প্রতিবেশীদের খোঁজ নিন, বিশেষ করে যারা মাত্র আপনার এলাকায় এসেছেন। তারাও ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় প্রস্তুত কি না, তা নিশ্চিত করুন।
বিঃ দ্রঃ প্রতিদিন প্রয়োজনীয় সকল স্বাস্থ্য টিপস আপনার ফেসবুক টাইমলাইনে পেতে আমাদের পেজ স্বাস্থ্য কথা ।। Health Talk এ লাইক দিন! 
Loading...

Check Also

হায়রে নিষ্ঠুর মানুষ হায়রে নিষ্ঠুর সমাজ!! শিশুকে জীবন্ত কবর দেয়ার পরেও কিভাবে বেচে যায় দেখুন (ভিডিও)

হায়রে নিষ্ঠুর মানুষ হায়রে নিষ্ঠুর সমাজ!! শিশুকে জীবন্ত কবর দেয়ার পরেও কিভাবে বেচে যায় দেখুন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

[X]
Loading...