Breaking News
Home / সম সাময়িক / ঘূর্ণিঝড় রোয়ানু বাংলাদেশ উপকূল অতিক্রম করছে, ব্যাপক তাণ্ডব, বাতাসের একটানা গতিবেগ ৮০ কিমি, মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাড়ালো ৬

ঘূর্ণিঝড় রোয়ানু বাংলাদেশ উপকূল অতিক্রম করছে, ব্যাপক তাণ্ডব, বাতাসের একটানা গতিবেগ ৮০ কিমি, মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাড়ালো ৬

▓▓▓▓ ব্রেকিং নিউজ▓▓▓▓

*** চট্টগ্রাম, ভোলা ও পটুয়াখালীতে ৬ জন নিহত।

*** ঘূর্ণিঝড় রোয়ানু বাংলাদেশ উপকূল অতিক্রম করছে।

*** ব্যাপক তাণ্ডব, বাতাসের একটানা গতিবেগ ৮০ কিমি।

*** পতেঙ্গায় ব্যাপক তাণ্ডব, উপড়ে গেছে গাছপালা, বিদ্যুতের খুঁটি।

*** হাতিয়ায় বেড়িবাঁধ ভেঙে নিঝুম দ্বীপ প্লাবিত।

*** ৩৫০০ সাইক্লোন শেল্টারে ৫ লাখ মানুষের আশ্রয়।

*** সন্ধ্যা ৬টা নাগাদ ঝড় থেমে যাবে: আবহাওয়া অফিস।

ঘূর্ণিঝড় রোয়ানু বাংলাদেশের চট্টগ্রাম উপকূল অতিক্রম করে উত্তর-পূর্ব দিকে যাচ্ছে। তবে সন্ধ্যা ৬টা নাগাদ ঝড় থেমে যাবে বলে জানিয়েছে ঢাকার আবহাওয়া অফিস। উপকূলীয় অঞ্চলে ঘূর্ণিঝড়ের ব্যাপক তাণ্ডবে অন্তত ১০ জন মারা গেছে। দুপুর ১২টার দিকে প্রায় ৮০ কিলোমিটার গতিবেগে বাতাস চট্টগ্রাম উপকুলে আঘাত হানে।

রোয়ানু’র তান্ডবে চট্টগ্রাম, ভোলা, লক্ষ্মীপুর, কক্সবাজার ও পটুয়াখালীতে এখন পর্যন্ত অন্তত ১০ জন নিহত হবার খবর পাওয়া গেছে।

দেশের উপকুলীয় এলাকার ১৮ জেলায় ৩৫ হাজার আশ্রয়কেন্দ্রে পাঁচ লাখ মানুষ আশ্রয় নিয়েছে বলে জানিয়েছে প্রসাশন।

ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে মহেশখালী ও কুতুবদিয়ার বিস্তির্ণ এলাকা প্লাবিত হয়েছে। ইতোমধ্যে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে সাধারণের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে স্থানীয় প্রশাসন।

পতেঙ্গার ঝিনুক মার্কেট ঝড়ে নিশ্চিহ্ণ হয়ে গেছে।

হাতিয়ায় বেড়িবাঁধ ভেঙে নিঝুম দ্বীপ প্লাবিত হয়েছে। ফলে সেখানে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এর আগে ঘূর্ণিঝড় রোয়ানু ধেয়ে আসার খবরে চট্টগ্রাম, মংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরে ৭ নম্বর এবং কক্সবাজারের জন্য ৬ নম্বর বিপদ সংকেত দেখাতে বলা হয়।

ঘুর্ণিঝড় রোয়ানুর প্রভাবে রাজধানী ছাড়াও দেশের উপকূলীয় অঞ্চল, দক্ষিণ পশ্চিম ও দক্ষিণ পূর্ব অঞ্চলের জেলাগুলোত রাত থেকেই বৃষ্টিপাত অব্যাহত রয়েছে। কোথাও কোথাও দমকা হাওয়া কিংবা ঝড়ো হাওয়ার সাথে ভারি থেকে অতিভারি বর্ষণ চলছে।

ভোলার তজুমদ্দিনে ঝড়ে কয়েকশ ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। এত দুইজনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে স্থানীয় প্রশাসন। নিহতরা হলেন ৩৫ বছর বয়সী রেখা বেগম ও ১৩ বছরের কিশোর আকরাম। তাদের বাড়ি তজুমদ্দিন বাজারে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছে উপজেলা চেয়ারম্যান।

এছাড়া পটুয়াখালিতে ঘর চাপা পড়ে একজন মারা গেছে। এদিকে চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে পাহাড়ধসে মা ও ছেলের মৃত্যু হয়েছে।

আবহওয়া অফিস বলছে, গতকাল সন্ধ্যা থেকে রাজধানীতে ২১ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। সব চেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছে পটুয়াখালীর খেপুপাড়ায়। এখানে ১৮০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে আবহাওয়া অফিস।

এছাড়া গতকাল রাত থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টির সঙ্গে ঝড়ো হাওয়ার খবর পাওয়া গেছে। বরিশাল শহরের বিভিন্ন সড়কে সৃষ্টি হয়েছে জলাবদ্ধতা। চট্টগ্রামের নিচু এলাকাগুলোতে হাটু সমান পানি জমার খবর পাওয়া গেছে।

বিঃ দ্রঃ প্রতিদিন প্রয়োজনীয় সকল স্বাস্থ্য টিপস আপনার ফেসবুক টাইমলাইনে পেতে আমাদের পেজ স্বাস্থ্য কথা ।। Health Talk এ লাইক দিন! 
Loading...

Check Also

হায়রে নিষ্ঠুর মানুষ হায়রে নিষ্ঠুর সমাজ!! শিশুকে জীবন্ত কবর দেয়ার পরেও কিভাবে বেচে যায় দেখুন (ভিডিও)

হায়রে নিষ্ঠুর মানুষ হায়রে নিষ্ঠুর সমাজ!! শিশুকে জীবন্ত কবর দেয়ার পরেও কিভাবে বেচে যায় দেখুন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

[X]
Loading...